ঈশরদীরাজশাহীসংবাদ সারাদেশ

ঈশ্বরদীতে প্রতিমা বিসর্জন দিতে গিয়ে যুবক নিখোঁজ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃ

ঈশ্বরদীতে প্রতিমা বিসর্জন দিতে গিয়ে পদ্মা নদী সাড়ার পাঁচ নম্বর ঘাট নৌকায় ঘুরতে গিয়ে শুভ রায় (২৫) নামের এক যুবক নিখোঁজ হয়েছেন। গত (১৫অক্টাবর) শুক্রবার সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিটে প্রতিমা বিসর্জনের সময় নৌকা থেকে পানিতে পড়ে নিখোঁজ হন তিনি।

নিখোঁজের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান চালানোর প্রস্তুতি নিয়েছে। নিখোঁজ শুভ রায় ঈশ্বরদী শহর কর্মকার পাড়া (নূরমহল্লা)এলাকার বাবলু রায়ের এক মাত্র ছেলে । শনিবার (১৬ অক্টোবর) রাজশাহী থেকে ডুবুরীর একটি টি ঈশ্বরদী সাড়া ৫নং ঘাটে তারা শনিবার সকাল ৪:৩০ মিনিট হতে অভিযান পরিচালনা করেন। প্রথমে নিখোঁজ শুভ রায় যে নৌকা দুর্ঘটনাকবলিত হয় সেই নৌকার মাঝি উজ্জল ও অমলের কাছ থেকে ঘটনার বিস্তারিত জানেন।

তারপর উজ্জ্বল ও অমলের দেখানো মতে স্থানে ডুবুরীর টিম উদ্ধার তৎপরতা চালায়। স্থানে শুভ রায় ডুবে যায় ওই স্থানে ডুবুরীর টিমের কাছে থাকা ১৫০০ফিট রশি দিয়ে ওই স্থানের মাটি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে নাই। এরপর শুভর পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের দেখানোর মত স্থানে তারা উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেন। ডুবুরী টিম দীর্ঘ ১১ ঘণ্টা উদ্ধার অভিযান চালিয়েও শুভ রায় কে উদ্ধার করতে পারেনি।

এই বিষয়ে ডুবুরীর প্রধান নুরনবী জানান, নদীর অনেক প্রশস্ততা অনেক গভীরতা থাকার পরেও আমমদের ডুবুরী দল আপ্রাণ চেষ্টা করেছে। ভিক্টিমের পরিবারের সাথে সমন্বয় করে তারা আমাদের সঙ্গে ট্রলারে উদ্ধার অভিযানে ছিল । যথেষ্ট পরিবার যতটুকু আমাদের সাধ্য ততটুকুর কমতি আমরা করিনি। তার পরেও ফায়ার সার্ভিসের ভাসমান উদ্ধার অভিযান তৎপর থাকবে বলে নিশ্চিত করেন।

তিনি আরো বলেন, যদি মারা গিয়ে থাকে তাহলে মেজারমেন্ট করেন ২৪ ঘন্টা কেউ আবার ২৪ ঘণ্টা আগে ভাসমান হয় ওঠেন। এই উদ্ধার নিয়োজিত ছিলেন তিনজন ডুবুরী ও দুইজন ফায়ার সার্ভিস কর্মী তারা হলেন, ডুবুরীর প্রধান মোহাম্মদ নূরনবী, মোহাম্মদ গোলাম রহমান, মোহাম্মদ জুয়েল রানা, দুইজন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা হলেন, মোঃ মোখলেছুর রহমান, মোহাম্মদ মামুন রশিদ এই উদ্ধারকাজে অভিযান পরিচালনা করেন।

এই বিষয়ে মাঝি উজ্জল আমাদের জানান, শুভ রায় সহ ৫-৬জন বন্ধু মিলে শ্যালো ইঞ্জিনচালিত আমার ডিঙ্গি নৌকা ভাড়া করেন। তারা নৌকায় উঠার পরে ঘাট থেকে কিছুদূর ফাঁকে একটি ট্রলার এর সঙ্গে ধাক্কা লাগলে নৌকা থেকে ছিটকে শুভ সহ ৫-৬জন পড়ে যায়। এই মত অবস্থায় সবাইকে উদ্ধার করার সম্ভব হলে শুভ রায় নৌকার কাছে থেকে নদীর স্রোতে ডুবে যায়। তারপর থেকে শুভ রায়ের খোঁজ পাওয়া যায়নি। এই মত অবস্থায় ডুবুরি টিমের সঙ্গে আমি উদ্ধারকাজে ছিলাম।

সাড়ার ৫নং ঘাটের এলাকাবাসী বলেন, আমাদের এই ঘাটে মাঝে মাঝে এমন দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসের কাছে কোন ডুবুরী নেই রাজশাহী থেকে ডুবুরী আনতে হয়। এলাকাবাসী দাবি করেন ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিস নিয়োগ দেওয়া হোক।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button