রাজশাহীরাজশাহীর সংবাদসংবাদ সারাদেশ

কুড়িগ্রামে তুলি হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন, পলাতক প্রেমিক

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

গতকাল শনিবার দুপুরে কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সিভিল টেকনোলজির ৭ম বর্ষের শিক্ষার্থী তানিয়া আক্তার তুলি ২১ হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট’র সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করা হয়।

ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রোভার সাইকেল সদস্য রাব্বি হাসান, সিনিয়র রোভার স্কাউট সদস্য ফারহানা তাবাসসুম, নিহত শিক্ষার্থীর বোন তাহমিনা, খালা মিনু আক্তার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

তুলি হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে অংশ নেয় কুড়িগ্রাম পলিকেটনিক ইনস্টিটিউটের সাধারণ শিক্ষার্থী, রোভার স্কাউট গ্রুপ, ব্লাড ডোনার ফাউন্ডেশনসহ ইনস্টিটিউটের একাধিক সংগঠন। বক্তারা বলেন, এটি একটি হত্যা। তানিয়া আক্তার তুলির বন্ধু আবু রায়হান সোহাগ তাকে হত্যা করেছে। সরকারের কাছে আমাদের দাবি অবিলম্বে খুনিকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর জেলার রাজারহাট উপজেলায় ঘুরতে যান ওই প্রেমিক যুগল। পরে রাজারহাট থেকে কুড়িগ্রাম শহরে ফেরার পথে টগরাইহাট নামক এলাকায় একটি ব্রীজের ওপর ওই তরুণীকে মিশুক থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে পালিয়ে যায় প্রেমিক। এসময় মাথায় প্রচন্ড আঘাত প্রাপ্ত তুলিকে স্থানীয়রা প্রথমে কুড়িগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে পরিবারের সদস্যরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এখানে টানা ৭ দিন চিকিৎসার পর মৃত্যু হয় তুলির।

কুড়িগ্রাম পৌরসভা এলাকার পাঠানপাড়া এলাকার তৈয়ব আলীর মেয়ে তুলি। অভিযুক্ত প্রেমিক সোহাগ একই এলাকার আব্দুল হাকিমের ছেলে।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সোহাগ পলাতক রয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button