রাজশাহীর সংবাদসংবাদ সারাদেশ

ভাতিজিকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদে মৃত্যুর মুখে ২ চাচা

বগুড়া প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার শেরপুরে ভাতিজিকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদে ২ চাচার বসতবাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এ সময় ২ চাচাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। পরে স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে, তাকে তাৎক্ষণিক বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

গতকাল শুক্রবার রাত ১০.৩০ মিনিটে উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া কলোনী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন ১। উপজেলার বাগড়া কলোনি গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে আলী আজম এবং ২। তার ভাই আব্দুল আজিজ।

আলী আজমের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে হাসপাতাল সূত্র। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল আজিজ বলেন, আমার বড় ভাই আলম হোসেন ঢাকায় চাকরি করেন। ভাই-ভাবি সেখানে থাকলেও তাদের ২ মেয়ে আমাদের সঙ্গে থাকে। স্থানীয় বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করে। আমার বড় ভাতিজি স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী। বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছে বাগড়া কলোনি গ্রামের আব্দুর রশিদের বখাটে ছেলে সজিব হাসান। বিষয়টি জানতে পেরে সজিবকে নিষেধ করা হয় উত্ত্যক্ত করতে । এতে, সে আরোও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এ নিয়ে এক পর্যায়ে আমার ও আমার ভাই আলী আজমের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এরই জের ধরে গতকাল শুক্রবার রাতে আমাদের বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালানো হয়। এ সময় আমাদের ২ জনকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করা হয়। একপর্যায়ে মৃত ভেবে রক্তাক্ত অবস্থায় আমাদেরকে ফেলে রেখে তারা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সজিব হাসানের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু, ঘটনার পর থেকে সে পলাতক থাকায় এবং ফোন বন্ধ করে রাখায় তার বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয় নি। শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ভুক্তভোগীসহ সবার সঙ্গে কথা বলেছেন পুলিশ সদস্যরা। একই সঙ্গে তাদের থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলেই আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এছাড়া, ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button