রাজশাহীরাজশাহীর সংবাদ

অল্প দামে টিসিবির পণ্য কিনতে ক্রেতাদের হুড়োাহুড়ি

স্টাফ রিপোর্টারঃ

আজ বুধবার ভদ্রা মোড়ে আসেনি টিসিবির গাড়ি। তাই অনেকেই কমপক্ষে ৫ থেকে ৬ ঘন্টা অপেক্ষা করে ফিরে যাচ্ছেন বাড়িতে। তারা সবাই অল্প দামে টিসিবির পণ্য কিনতে এসেছিলেন।

৭৫ বছর বয়সের আজেদা জানান, আমার বাড়ি খড়খড়ি বাইপাসের বামনশিকড় এলাকায়। স্বামী অন্যত্র ঘর বেঁধেছে। আমি ভাইদের কাছে থাকি। তিন বছর আগে ইটের ভাটায় কাজে গিয়ে আমার পুরো শরীর আগুলো ঝলসে যায়। তার পর থেকে আর কাজ করতে পারিনা।

তিনি আরো বলেন, ‘এই লাইন থেকে তেল কিনলে লিটারে ৫০ টাকা কম। মসুরের ডাল কিনলেও একই। তাই লাইনে দাঁড়িয়েছি ভোরে। আমার মত অনেকেই আসে অটোরিক্সা ভাড়া করে। লাইনে দাঁড়াতে লজ্জা লাগে, কি করবো পেটের কাছে লজ্জা বলে কিছু নেই।

দামের ফারাক ৫০ টাকা। বাজারে সয়াবিন তেল ১৫০ টাকা লিটার। আর টিসিবি বিক্রি করছে ১০০ টাকা। টিসিবি’র ডিলার থেকে কিনলে পাঁচ লিটার তেলের ক্যানে ২৫০ টাকা সাশ্রয়। ফলে টিসিবির সয়াবিন পেতে ক্রেতাদের হুড়োাহুড়ি, এমন কি মারামারির মত ঘটনাও ঘটেছে।

টিসিবির ডিলার মেসার্স সরদার এন্টারপ্রাইজের আশকান আলী সরদার জানান, মানুষের টার্গেট সয়াবিন তেল। সয়াবিন তেল নিতে বেশি মানুষ ভীড় করে। টিসিবি থেকে একজন ডিলারকে ৮০০ লিটার সয়াবিন তেল বিক্রির জন্য দেয়া হচ্ছে। আগে ৬০০ লিটার সয়াবিন দেয়া হত।

ডিলাররা বলছেন, একজন প্রতিদিন টিসিবির পণ্য কিনলে তাদের কিছু করার নেই। লাইনে দাঁড়ালে যে কেউ টিসিবির পণ্য কিনতে পারবে। টিসিবি বলছে, এমন সমস্যা এড়াতে ঝটিকা পরিবর্তন হবে টিসিবির পণ্য বিক্রির পয়েন্টগুলো। ৫ থেকে ৬ নারীর একটি দল রয়েছে। তারা প্রতিদিন তেল কিনছে। এতো তেল তো বাড়িতে খাওয়া সম্ভব নয়। তারা বিক্রিও করতে পারে।

টিসিবি সূত্রে জানা গেছে- তারা রাজশাহীতে ভ্রামম্যাণ ট্রাকে ডিলারের মাধ্যমে সয়াবিন তেল ১০০ টাকা, চিনি ৫৫ টাকা ও মসুরের ডাল ৫৫ টাকা দরে বিক্রি করছে। এতে দেখা যাচ্ছে, দোকানের ১ কেজি মসুরের ডালের তুলনায় টিসিবির লাইনে প্রায় ২ কেজি পাওয়া যাবে। তাই মসুরের ডাল ও সয়াবিন তেলের চাহিদা বেশি।

রাজশাহী টিসিবি উর্ধ্বতন কার্যনির্বাহী (অফিস প্রধান) রবিউল মোর্শেদ জানান, এক শ্রেণির নারী প্রতিদিন নিয়ে যাচ্ছে টিসিবির পণ্য। তারা তেল নিয়ে বিভিন্ন দোকানে বিক্রি করে। বিষয়টি রোধে আমরা ঝটিকা পয়েন্ট পরির্বতনের কথা ভাবছি।

গত রবিবার (২২ আগস্ট) রাজশাহী সাহেব বাজারে এক দোকানে অভিযান পরিচালনা করে ৪৮ লিটার টিসিবির সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। এ সময় দোকান মালিককে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। দোকান মালিক আমাদের জানিয়েছেন, তিনি কয়েকজন নারীর থেকে এই তেল কিনেছেন।

এই ধরণের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button